নির্বাচিত কলাম

রম্য সাহিত্যিক বেগম ফাহমিদা আমিন

রম্য সাহিত্যিক বেগম ফাহমিদা আমিন

আনোয়ারা আলম :: কবি রবীন্দ্রনাথের মতো শোককে শক্তি হিসেবে ধারণ করে- এ বন্দর নগরীতে তিনি ছিলেন বটবৃক্ষের সুশীতল ছায়ার মতো। এ মাসেই তার জন্ম মাস! আর এ মাসেই তিনি প্রবাসের মাটিতে বিদায় জানালেন সবাইকে- দেশের শিল্পাঙ্গনের আলোকিত এক প্রদীপ নিভে গেল চিরতরে-সময়ের বিচারে গতায়ু তিনি-তবে সৃষ্টিশীল মানুষেরা অমর হয়ে থাকেন শিল্পকর্মের মাঝে-অমরতার দ্বারপ্রান্তে দাঁড়ান তাঁরা-তিনি ছিলেন-আছেন-থাকবেন আমাদের মাঝে অনন্তকাল-সৌরভ ছড়াবেন নীরবে-নিভৃতে-তাঁর প্রতিভা ও জীবন বাংলাদেশের অলংকার। “কলেজের প্রথম দিনের প্রথম ক্লাসে আমাদের শিক্ষক ড. মোখলেসুর রহমান সবাইকে প্রশ্ন করেন, আমরা কে কি হতে চাই? মনে আছে আমার পালা এলে আমি বলেছিলাম, ‘আমি বিবাহিত স্যার, আমার কিছু হওয়া না হওয়া আমার ওপর নির্ভর করে না স্যার।” একথাগুলো লিখেছেন আমাদের অতি প্রিয় ও শ্রদ্ধেয় বিশিষ্ট রম্য সাহিত্যিক ফাহমিদা আমিন। বিয়ে বা পরনির্ভরতা–সংসার
মহাসড়কের মহাদুর্ভোগ কাটবে কি?

মহাসড়কের মহাদুর্ভোগ কাটবে কি?

শান্তনু চৌধুরী ::: প্রতিবছরের মতো এবারো ঈদের আগে আগে শুরু হয়েছে তোড়জোড়। সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ছুটছেন এখানে-সেখানে। ভাঙাচোরা সড়ক মেরামতের জন্য তদারকি করছেন। কারো ছুটি বাতিল হচ্ছে, কোথাও ধমক, ভয় বা শাসানিও চলছে। একই সঙ্গে সংবাদমাধ্যমগুলোকেও অনুরোধ জানিয়েছেন, নেতিবাচক সংবাদ পরিবেশন করে যাতে কারো মনে ভয়ভীতি সৃষ্টি না করে। এবার সড়ক পথে যাত্রা নির্বিঘ্ন হবে বলেও আশ্বাস দিয়েছেন তিনি। এই যে ছোটাছুটি, বিশেষ করে ঈদ যাত্রার আগে, এর সবই কিন্তু সাধারণ মানুষ যাতে প্রিয়জনের সঙ্গে ঈদটা আনন্দের সঙ্গে কাটাতে পারে সে কারণে। কিন্তু মহাসড়কের যে মহাদুর্ভোগ সেটা কি এই কয়দিনে কাটবে? কারণ এই দুর্ভোগ তো আর একদিনের নয়। আমরা উৎসবপ্রিয় জাতি। যেকোনও উৎসবে পরিবার-পরিজন নিয়ে মেতে উঠতে ভালোবাসি। তাই নাগরিক জীবনে যাদের ব্যস্ততা, সময় বার করার মতো সুযোগ যাদের হয় না তারা অন্তত ছুটির সময়গুলোতো ফিরে যেতে চাই আপন আলয়ে।
তিস্তা টালবাহানায় সুষমা দিলেন আসল বার্তা

তিস্তা টালবাহানায় সুষমা দিলেন আসল বার্তা

আনিস আলমগীর::: ২০১৭ সালের এপ্রিল মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফরের সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি সংবাদ সম্মেলনে প্রকাশ্যে বলেছিলেন তার এবং শেখ হাসিনার প্রধানমন্ত্রিত্বের সময়সীমার মধ্যেই তিস্তাচুক্তি সম্পাদন করা হবে। ২০১৮ সালের ডিসেম্বরে বাংলাদেশের সাধারণ নির্বাচন আর ২০১৯ সালের মে মাসে ভারতের লোকসভা নির্বাচন। এরমধ্যে তিস্তাচুক্তি সম্পাদন করা সম্ভব হয়নি। লোকসভা নির্বাচনের পূর্বে এ চুক্তি মোদি কিংবা মমতা কেউই আর করতে সাহসী হবেন না বলা যায়। কারণ, তারা কেউই নির্বাচনের পূর্ব মুহূর্তে কোনও ঝুঁকিপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিতে চাইবেন না। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারত সফর করে আসার পরপরই সম্ভবত সে কথাটিই ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সুষমা স্বরাজ সুস্পষ্ট করে দিয়েছেন। মোদি সরকারের চার বছর পূর্তি উপলক্ষে ২৮ মে ২০১৮ আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে বহু প্রতীক্ষিত তিস্তা নদীর জলবণ্টন চুক্তি সম্পর্কে বলতে গিয়ে
ইতিকাফ পরকাল সফরের প্রশিক্ষণ

ইতিকাফ পরকাল সফরের প্রশিক্ষণ

মুফতি তাজুল ইসলাম ::: মদিনায় অবস্থানকালে রাসুলুল্লাহ (সা.) প্রতিবছরই ইতিকাফ পালন করেছেন। শত ব্যস্ততা সত্ত্বেও রমজানে তিনি ইতিকাফ ছাড়েননি। ইতিকাফরত অবস্থায় বান্দা নিজেকে আল্লাহর ইবাদতের জন্য দুনিয়ার অন্য সব কিছু থেকে আলাদা করে নেয়। ঐকান্তিকভাবে মশগুল হয়ে পড়ে আল্লাহর নৈকট্য অর্জনের নিরন্তর সাধনায়। ইতিকাফ ঈমান বৃদ্ধির একটি মুখ্য সুযোগ। বিশেষ নিয়তে, বিশেষ অবস্থায় আল্লাহ তাআলার আনুগত্যের উদ্দেশ্যে মসজিদে অবস্থান করাকে ইতিকাফ বলে। পবিত্র কোরআনে বিভিন্নভাবে ইতিকাফ সম্পর্কে বর্ণনা এসেছে, ইবরাহিম (আ.) ও ইসমাইল (আ.)-এর কথা উল্লেখ করে ইরশাদ হয়েছে, ‘আমি ইবরাহিম ও ইসমাইলকে আদেশ করলাম, তোমরা আমার গৃহকে তাওয়াফকারী, ইতিকাফকারী ও রুকু-সিজদাকারীদের জন্য পবিত্র করো।’ (সুরা : বাকারা, আয়াত : ১২৫) ইতিকাফ অবস্থায় স্ত্রীদের সঙ্গে কী আচরণ হবে—এ প্রসঙ্গে আল্লাহ তাআলা বলেন, ‘আর তোমরা মসজিদে ইতিকাফকালে স্ত্র
‘দেশে ৩২ লাখ বৈধ গাড়ি থাকলেও লাইসেন্স আছে ১৭ লাখ চালকের’

‘দেশে ৩২ লাখ বৈধ গাড়ি থাকলেও লাইসেন্স আছে ১৭ লাখ চালকের’

সড়ক দুর্ঘটনার জন্য কাউকে এককভাবে দায়ী করা যায় না বলে মন্তব্য করেছেন চট্টগ্রাম বিভাগীয় কমিশনার মো. আবদুল মান্নান। তিনি বলেন, ‘এ দেশে প্রায় ১৭ কোটি মানুষের মধ্যে ৭০ শতাংশ মানুষ পরিবহনের মাধ্যমে যাতায়াত করছে। ৮০ শতাংশ পণ্য সড়কপথে পরিবহন করা হয়ে থাকে।’ শনিবার নগরের মুরাদপুরে এলজিইডি মিলনায়তনে বিআরটিএ চট্টমেট্রো ও চট্টগ্রাম জেলা সার্কেল আয়োজিত সড়ক দুর্ঘটনা হ্রাসকল্পে সচেতনতা বৃদ্ধিমূলক সেমিনার ও আলোচনাসভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন। বিভাগীয় কমিশনার বলেন, ‘দেশে ৩২ লাখ বৈধ গাড়ি থাকলেও মাত্র ১৭ লাখ চালকের লাইসেন্স আছে। আরো অসংখ্য যানবাহন অবৈধভাবে চলাচল করছে। ওভারটেকসহ অদক্ষ চালক-হেলপার দিয়ে গাড়ি চালানো, চোখে ঘুম নিয়ে বা মাদকসেবন করে গাড়ি চালানো, গাড়ির যন্ত্রাংশগুলো সঠিকভাবে কাজ করছে কিনা তা নিয়মিত যাচাই না করা, সড়কে গাড়ি চলাচলের উপযুক্ততা আছে কিনা তা না দেখা, ফুটওভার ব্রিজ ও ফুটপাত
ঐতিহাসিক বদর দিবসের ভাবনা

ঐতিহাসিক বদর দিবসের ভাবনা

মুফতি শাহেদ রহমানি:::   আজ ১৭ রমজান, ঐতিহাসিক বদর দিবস। ৬২৪ খ্রিস্টাব্দের ১৬ মার্চ, হিজরি দ্বিতীয় বর্ষের ১৭ রমজানে ৩১৩ জন সাহাবিকে সঙ্গে নিয়ে মহানবী (সা.) মদিনা শরিফের দক্ষিণ-পশ্চিম কোণে বদর নামক স্থানে কাফিরদের সঙ্গে এক রক্তক্ষয়ী যুদ্ধে মিলিত হন। এ যুদ্ধকে ‘বদর যুদ্ধ’ নামে অভিহিত করা হয়। ইসলাম ও মুসলিমদের ইতিহাসের অনেক গুরুত্বপূর্ণ ও তাৎপর্যপূর্ণ ঘটনা বুকে ধারণ করে আছে এই রমজান মাস। সেগুলো বিশেষভাবে মুসলমানদের ত্যাগ, বিজয় ও সফলতার ইতিহাসসমৃদ্ধ। ড. ওহাবা জুহাইলি (রহ.) তাঁর জগদ্বিখ্যাত গ্রন্থ ‘আল ফিকহুল ইসলামী ওয়া আদিল্লাতুহু’র মধ্যে মাহে রমজানের বৈপ্লবিক দিক নিয়ে আলোচনা করেছেন। তিনি দেখিয়েছেন,যুগে যুগে মুসলমানরা কিভাবে রমজান উদযাপন করেছেন। মুসলমানরা শান্তভাবে সিয়াম সাধনা করে। বিতর্ক ও বিবেকহীন কাজকর্ম পরিহার করে তারা রোজা রাখে। কিন্তু কেউ অন্যায় করলে তাকে প্রশ্রয় দেয় না। অন্যায়ের
ইয়াবা অভিযান নিয়ে একটি ‘অসুশীল’ লেখা

ইয়াবা অভিযান নিয়ে একটি ‘অসুশীল’ লেখা

আনিস আলমগীর::: ফিলিপাইনের অবস্থা বাংলাদেশের চেয়েও খারাপ ছিল, এখন নাকি বাংলাদেশ ফিলিপাইনকে হার মানিয়েছে। একসময়ের চীনাদের মতো এখন বাঙালিও নেশায় বুঁদ হয়ে আছে। চীনারা বুঁদ হয়েছিল আফিমের নেশায়। এখন আফিম নেই, আফিমে স্থান নিয়েছে ইয়াবা। ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট নির্মম ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশে দিয়েছেন। কাজ যে কিছুফিলিপাইনের অবস্থা বাংলাদেশের চেয়েও খারাপ ছিল, এখন নাকি বাংলাদেশ ফিলিপাইনকে হার মানিয়েছে। একসময়ের চীনাদের মতো এখন বাঙালিও নেশায় বুঁদ হয়ে আছে। চীনারা বুঁদ হয়েছিল আফিমের নেশায়। এখন আফিম নেই, আফিমে স্থান নিয়েছে ইয়াবা। ফিলিপাইনের প্রেসিডেন্ট নির্মম ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশে দিয়েছেন। কাজ যে কিছুহচ্ছে না তা নয়। ফিলিপাইন কিছুটা স্বস্তির নিশ্বাস ফেলছে। চীনা জাতিকে যদি আফিমের নেশা থেকে মুক্ত করা যায় তবে ইয়াবা থেকে বাঙালি জাতিকে মুক্ত করা যাবে না কেন? চীনের সর্বনাশ তো আরও ভয়াবহ ছিল। বাংলাদেশের প্র
মৃত্যুর মহাসড়কে চলছে লাশের মিছিল

মৃত্যুর মহাসড়কে চলছে লাশের মিছিল

দাউদুল ইসলাম::: মৃত্যুর মহাসড়কে চলছে লাশের মিছিল। প্রতিদিন, প্রতি মুহুূর্তে ঝরছে তরতাজা প্রাণ। মশা মাছির মতন নির্বিচারে জীবন দিচ্ছে মানুষ! এ যেন মহাসড়কের মহাব্যাধি! এর যেন কোন প্রতিষেধক নাই, নাই কোন প্রতিরোধক। ফলে এই মহামারি এই ব্যাধিতে আক্রান্ত হচ্ছে সমাজের সকল শ্রেণীর পেশার মানুষ। কারণ আমরা সকলেই এসব যানবাহনের যাত্রী, সমাজের ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার, উকিল মোক্তার, শিক্ষক ছাত্র/ছাত্রী, কৃষক শ্রমিক, চাকুরীজীবী, পেশাজীবী, নারী পরুষ অর্থাৎ সকলকেই তো কোন না কোন যানবাহনে উঠতে হচ্ছে, হোক তা প্রাইভেট অথবা পাবলিক। যেহেতু সমস্যাটা সড়ক ব্যবস্থাপনায়, সড়ক নিয়ন্ত্রণের সেহেতু আপনি যেই কোন যানবাহনের যাত্রী হোন না কেন আপনি মৃত্যুর মহাসড়কে পা রাখলেন। কিন্তুকেন? অনেকেই কথায় বলে “এক্সিডেন্ট মানে এক্সিডেন্ট, এইটা কি কেউ ইচ্ছে করে করে?” কথাটির যুক্তি থাকলেও বর্তমান প্রেক্ষাপটে এই যুক্তি টি সম্পূর্ণ ভুল! বরং
ইফতারের পর ক্লান্তি দূর করার উপায়

ইফতারের পর ক্লান্তি দূর করার উপায়

খাওয়া-দাওয়ার একটু অনিয়ম হলে কিংবা অনেক বেশি পরিশ্রম করলে শরীর অনেক ক্লান্ত হয়ে পড়ে। কিন্তু রমজান মাসে ক্লান্তি নিত্য-নৈমিত্তিক ব্যাপার হয়ে দাঁড়ায়। সারাদিন রোজা রেখে ইফতারির পর আর কিছু করতে ইচ্ছা করে না। অনেক ক্লান্ত লাগে। তখন কোন কাজ করতেও মন চায় না। এমনকি রাতের খাবারটাও আর খেতে ইচ্ছা করে না। মন চায় শুধু ঘুমের রাজ্যে তলিয়ে যেতে। তবে এমন কিছু কাজ আছে যা করলে এই ক্লান্তি থেকে মুক্তি পাওয়া সম্ভব। জেনে নিন সে রকম কিছু টিপস। ১. ইফতারের পর ক্লান্ত বোধের অন্যতম কারণ হলো ইফতারে একগাদা খেয়ে পেট ভারী করে ফেলা। তাই শরীরের ক্লান্ত দূর করতে অল্প করে খান, একটু পর পর খান। দেখবেন দেহে আগের মতো ক্লান্তি বোধ হচ্ছে না। ২. দেহে ক্লান্তি ভর করার আরেকটি বড় কারণ হচ্ছে দেহ পানিশূন্য হয়ে পড়া। ইফতারে সাধারণত সকলেই ভাজাপোড়া ও ভারী খাবার খেয়ে একেবারেই পেট ভারি করে ফেলেন। কিন্তু এই সময়ে আপনার দরকার প্রচুর পা
মাহে রমজান : করনীয় ও বর্জনীয়

মাহে রমজান : করনীয় ও বর্জনীয়

মাওলানা ছানাউল্যা::: ‘রোজা তোমাদের উপর ফরজ করা হয়েছে যেমন ফরজ করা হয়ে ছিল তোমাদের পূর্ব বর্তীদের উপর, যাতে করে তোমরা খোদাভীরুতা অর্জন করতে পার’। আল্লাহ্ তায়ালার বানী দ্বারা বুঝা যায় রোজা শুধু আমাদের উপর নয় পূর্ব বর্তীদের উপর ফরজ ছিলো, যেমন নূহ (আঃ) যুগে মাসে তিনদিন, দাউদ (আঃ) এর যুগে রোজা ছিলো একদিন রোজা বিহিন এবং বলা হয়েছে দাউদের রোজা উত্ত রোজা। আবার কারো জন্য ছিলো কথার রোজা মানে কথা না বলা, সিয়াম বা রমাদান এর অর্থ কি? সিয়াম অর্থ বিরত থাকা। সুবেহ সাদিক হতে সূর্যাস্ত খানা পিনা ও যৌন সম্ভোগ হতে বিরত থাকা। রমাদান অর্থ জ¦ালিয়ে পুড়িয়ে ছারখার করে দেওয়া, মানুষের মাঝে পুঞ্জিভুত পাপ পংকলতাকে রোজার আগুনে জ¦ালিয়ে শেষ করে খাটি হওয়া, যেমন স্বর্ণ আগুনে জ¦ালিয়ে নিখাদ করা হয়। রমজানের করণীয়: রোজার পুর্ণ ফজিলত পাওয়ার জন্য হালাল খাবারের সাহরী ইফতার, সকল কথা ও কাজে পাপ মুক্ত থাকার চেষ্টা ‘ যেই লোক
error: Content is protected !!