ইসলাম

চাঁদ দেখা গেছে, ঈদুল আজহা ২২ আগস্ট

চাঁদ দেখা গেছে, ঈদুল আজহা ২২ আগস্ট

মিরসরাইনিউজডটকম ::: পবিত্র জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে, আগামী ২২ আগস্ট বুধবার সারাদেশ উদযাপিত হবে পবিত্র ঈদুল আজহা। আজ রবিবার সন্ধ্যায় ইসলামিক ফাউন্ডেশনের বায়তুল মোকাররম মিলনায়তনে আয়োজিত সভা শেষে এ ঘোষণা দেয়া হয়। এদিকে, আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যম বলা হয়েছে, সৌদি আরবসহ মধ্যপ্রাচ্যে গতকাল শনিবার সন্ধ্যায় জিলহজের চাঁদ দেখা গেছে। সে হিসেবে আগামী ২১ আগস্ট সৌদিতে পবিত্র ঈদুল আজহা উদযাপিত হবে। ঈদুল ফিতরের পর ঈদুল আজহা মুসলমানদের দ্বিতীয় বড় ধর্মীয় উৎসব। ত্যাগের মহিমায় উদ্ভাসিত এ উৎসবে মুসলমানরা তাদের প্রিয় বস্তু মহান আল্লাহর নামে উৎসর্গ করে তার সন্তুষ্টি অর্জনের চেষ্টা করেন। ঈদুল আজহা অনুষ্ঠিত হওয়ার সময়ই লাখ লাখ মুসলমান সৌদি আরবের পবিত্র ভূমিতে হজব্রত পালনরত অবস্থায় থাকেন। হাজিরা ঈদের দিন সকালে কোরবানি দেন। এবার ঈদে ২১, ২২ ও ২৩ আগস্ট সরকারি ছুটি থাকবে।
জিলহজ মাসের তাৎপর্য ও করণীয়

জিলহজ মাসের তাৎপর্য ও করণীয়

তাজুল ইসলাম পাটওয়ারী ::: মুসলমানের জীবনকাঠামোকে ইবাদতের ফ্রেমে বাঁধাই করে রাখা হয়েছে। দৈনিক পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ। সাপ্তাহিক জুমার নামাজ। মাসের মধ্যবর্তী তিন দিন নফল রোজা। মাসব্যাপী বার্ষিক রমজানের রোজা। এরপর আসে জিলহজের প্রথম দশক। হাদিসের ভাষ্য মতে, এ দিনগুলো পৃথিবীর অন্যতম শ্রেষ্ঠতম দিন। এ দিনগুলোয় ইবাদত ও আমলের প্রতি সবিশেষ গুরুত্বারোপ করা হয়েছে। কোরআনের আয়নায় জিলহজ জিলহজের প্রথম দশকের মর্যাদা, মাহাত্ম্য ও শ্রেষ্ঠত্ব বোঝাতে গিয়ে আল্লাহ তায়ালা এ দিনগুলোর কসম খেয়েছেন। তিনি বলেন, ‘শপথ প্রভাতের। শপথ ১০ রাতের।’ (সুরা : ফাজর, আয়াত : ১-২) এখানে যে ১০ রাতের কথা বলা হয়েছে, এর মাধ্যমে জিলহজের প্রথম দশককেই বোঝানো হয়েছে। (তাফসিরে ইবনে কাসির, চতুর্থ খণ্ড, পৃ. ৫৩৫) চারটি পবিত্র ও সম্মানিত মাসের মধ্যে জিলহজ অন্যতম। মহান আল্লাহ বলেন, ‘নিশ্চয়ই আল্লাহর বিধান ও গণনায় মাস ১২টি, আসমানগুলো ও পৃথিব
জিলহজের চাঁদ দেখা গেছে, সৌদিতে ২১ আগস্ট ঈদুল আজহা

জিলহজের চাঁদ দেখা গেছে, সৌদিতে ২১ আগস্ট ঈদুল আজহা

ইসলাম ডেস্ক ::: সৌদি আরবের আকাশে শনিবার (১১ আগস্ট) সন্ধ্যায় হিজরি জিলহজ মাসের চাঁদ দেখা গেছে। সেজন্য আগামী ২০ আগস্ট (সোমবার) সৌদিসহ মধ্যপ্রাচ্যের দেশগুলোতে পবিত্র হজ পালন হবে। তার পরদিন ২১ আগস্ট (মঙ্গলবার) উদযাপন হবে পবিত্র ঈদুল আজহা। শনিবার সৌদি সুপ্রিম কোর্ট রাজকীয় ফরমান জারির মাধ্যমে বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ফরমানের বরাত দিয়ে সৌদির সংবাদমাধ্যম জানায়, হজের অংশ হিসেবে হাজিরা ১৮ আগস্ট সন্ধ্যার পরপর মক্কা থেকে মিনার উদ্দেশ্যে রওনা হবেন। ১৯ আগস্ট সারাদিন মিনায় অবস্থান করে সেদিন রাতে আরাফাতের ময়দানের উদ্দেশে যাত্রা করবেন হাজিরা। ২০ আগস্ট আরাফাতের ময়দানে অবস্থিত মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুতবা দেওয়া হবে। হজের খুতবা শেষে জোহর এবং আসরের নামাজ একত্রে আদায় করবেন হাজিরা। সেদিন সূর্যাস্তের পর আরাফা থেকে মুজদালিফায় যাবেন। সেখানে গিয়ে হাজিরা মাগরিব এবং এশার নামাজ আদায় করবেন। মুজদালিফায় খোলা আকা
লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক

লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক

জাহাঙ্গীর আলম জাবির ::: হজ শব্দের আভিধানিক অর্থ কাবা পরিদর্শন। সামর্থ্যবান প্রত্যেক মুসলমানের জন্য পৃথিবীর প্রথম উপাসনালয় কাবা শরিফ তাওয়াফ এবং মদিনা মনোয়ারা জিয়ারত আবশ্য কর্তব্য। হজের প্রথম তাৎপর্য হচ্ছে, এটি সমগ্র বিশ্ব মুসলিমের এমন এক মহা সমাবেশ, যেখানে সমগ্র বিশ্বের বিভিন্ন বিভিন্ন বর্ণের, ভাষা এবং আকার-আকৃতির মানুষ একই ধরনের পোশাকে সজ্জিত হয়ে একই কেন্দ্রবিন্দুতে এসে সমবেত হন। সবারই লক্ষ্য বিশ্বমানবের প্রথম উপাসনা কেন্দ্র কাবা শরিফ জিয়ারত, সবার মুখে একই ভাষার একটি মাত্র বাক্য ‘লাব্বাইক আল্লাহুম্মা লাব্বাইক’; যার বাংলা অর্থ ‘হাজির হয়েছি ওগো আল্লাহ হাজির হয়েছি। এসেছি, তোমার ডাকে সাড়া দেওয়ার জন্য এসেছি। আমার সবকিছু তোমার কাছে সমর্পণ করতে এসেছি।’ তাই বলতে হয়, হজের এ সফরে অন্য কোনো উদ্দেশ্য নয়, কোনো লক্ষ্য নয়, কোনো পার্থিব স্বার্থের আকর্ষণ নয়, শুধুমাত্র আল্লাহর সন্তুষ্টি, আল্লাহর নির্দ
ইমামদের বয়ান ঠিক রাখতে অ্যাপ চালু করছে সৌদি আরব

ইমামদের বয়ান ঠিক রাখতে অ্যাপ চালু করছে সৌদি আরব

মিরসরাইনিউজডটকম ::: সৌদি আরবের কর্তৃপক্ষ এমন একটি মোবাইল অ্যাপলিকেশন তৈরি করছে, যা দেশটির মসজিদের ইমামদের ধর্মীয় বয়ান পর্যবেক্ষণ করবে এবং বয়ান বেশি লম্বা হয়ে গেলে সেটি ব্যবহার করে তাদের সতর্ক করা যাবে। সৌদি আরবের ইসলাম ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রী আবদুল লতিফ আল-শাইখ আল-ওয়াতান পত্রিকাকে জানিয়েছেন, এই অ্যাপটি মসজিদে ইমামদের বয়ানের 'সময়' এবং 'মান' পর্যবেক্ষণ করবে। তবে কে বা কারা এসব পর্যবেক্ষণ তদারকি করবেন, তা এখনো পরিষ্কার নয়। ধারণা করা হচ্ছে, নিয়মিত নামাজীরা এই অ্যাপ ব্যবহার করে তাদের ইমামদের কার্যক্রম সম্পর্কে নম্বর দিতে পারবেন। ধর্মীয় বয়ান ও শিক্ষার বিষয়ে বর্তমানে সংস্কার কার্যক্রম পরিচালনা করছে সৌদি আরব। 'বিদেশী, দলগত বা ব্রাদারহুড' চিন্তাভাবনা থেকে মানুষজনকে সরিয়ে আনতে সর্বত্র একই ধরণের বয়ান চালু করার কথা ভাবা হচ্ছে, যা নিয়ে দেশটিতে বিতর্ক চলছে। এর আগে আরেকটি অ্যাপ
স্মরণে মননে সোনার মদিনা

স্মরণে মননে সোনার মদিনা

ইয়াসরিব থেকে মদিনা মক্কায় ইসলাম প্রচার যখন অত্যন্ত দুরূহ হয়ে পড়ে, মুসলমানদের ওপর নির্যাতন সীমা অতিক্রম করে, তখন মহান আল্লাহর পক্ষ থেকে মুসলমানদের মদিনায় হিজরত করার নির্দেশ দেওয়া হয়। রাসুল (সা.) আবু বকর সিদ্দিক (রা.)-কে নিয়ে যখন মদিনায় প্রবেশ করেন, তখন আনসারের একটি বিরাট দল এই পবিত্র কাফেলাকে সাদর অভ্যর্থনা জানায়। পুরো মদিনা লোকে লোকারণ্য। পথে-ঘাটে, লোক চলাচলের রাস্তায়, ঘরের ছাদে, খিড়কিপথে ও দরজায় এককথায় মদিনার অলিগলিতে উত্ফুল্ল মানুষ মহানবী (সা.)-কে একনজর দেখার আগ্রহে অধীর। আবাল-বৃদ্ধ-বনিতা, মনিব-ভৃত্য সবার মুখেই অনুরণিত হচ্ছিল ‘তালাআল বাদরু আলাইনা...।’ ওই দিন থেকে ইয়াসরিবের লোকেরা তাদের শহরের নাম পাল্টে রেখেছে মাদিনাতুর রাসুল বা রাসুলের মদিনা। এর অর্থ রাসুলের শহর। সেখান থেকে এসেছে মদিনা। এ বিষয়ে রাসুলুল্লাহ (সা.) বলেন, ‘আমাকে এমন এক নগরীতে বসবাসের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে, যা মর্যাদায় সব

কাবা পৃথিবীর প্রথম জমিন

ইসলাম ডেস্ক ::: পবিত্র কাবা শরিফ পৃথিবীতে আল্লাহর জীবন্ত নিদর্শন। সৃষ্টির সূচনা থেকেই মহান আল্লাহ কাবাকে তাঁর মনোনীত বান্দাদের মিলনমেলা হিসেবে কবুল করেছেন। ভৌগোলিকভাবেই গোলাকার পৃথিবীর মধ্যস্থলে কাবার অবস্থান, যা পৃথিবীর কেন্দ্রস্থল হিসেবে বিবেচিত। এ বিষয়ে পিএইচডি করেছেন ড. হুসাইন কামাল উদ্দীন আহমদ। তাঁর থিসিসের শিরোনাম হলো—‘ইসকাতুল কুররাতিল আরধিয়্যা বিন্ নিসবতে লি মাক্কাতিল মুকাররামা।’ (মাজাল্লাতুল বুহুসুল ইসলামিয়া, রিয়াদ : ২/২৯২) ওই থিসিসে তিনি প্রাচীন ও আধুনিক দলিল-দস্তাবেজের আলোকে এ কথা প্রমাণ করেছেন যে কাবাই পৃথিবীর মেরুদণ্ড ও পৃথিবীর মধ্যস্থলে অবস্থিত। ইসলামের রাজধানী হিসেবে কাবা একটি সুপরিচিত নাম। পানিসর্বস্ব পৃথিবীতে মাটির সৃষ্টি এ কাবাকে কেন্দ্র করেই। উম্মুল কুরা বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণাকেন্দ্রের পরিচালক ড. খালিদ বাবতিনের গবেষণায় দেখা গেছে, সৌদি আরবে অবস্থিত পবিত্র কাবাই পৃ

হজে আগ্রহীদের জানা জরুরি

মুফতি ইসমাঈল ::: ইবরাহিম (আ.) কাবাঘরের পুনর্নির্মাণকার্য সমাপ্ত করে আল্লাহ তাআলার নির্দেশে হজের ঘোষণা করেন। তাঁর এ ঘোষণা তখন পৃথিবীতে বিদ্যমান ও কিয়ামত পর্যন্ত আগমনকারী সব মানুষের কানে পৌঁছে দেওয়া হয়। কিয়ামত পর্যন্ত যারা হজ করবে, তারা সেদিন ইবরাহিম (আ.)-এর ওই আহ্বানে সাড়া দিয়ে বলেছিল, ‘লাব্বাইক, আল্লাহুম্মা লাব্বাইক।’ (তাফসিরে ইবনে কাসির : ৩/২৬০) হজ ও ওমরাহর সংজ্ঞা : ‘হজ’ অর্থ—কোনো মহৎ কাজের ইচ্ছা করা। হজের নিয়তসহ ইহরাম ধারণ করে নির্দিষ্ট দিনে আরাফাতের ময়দানে অবস্থান করা ও কাবা শরিফ তাওয়াফ করাকে হজ বলে। (ফাতাওয়া শামি : ২/৪৫৪) আর ‘ওমরাহ’ অর্থ—পরিদর্শন করা। ওমরাহর নিয়তে ইহরাম ধারণ করে তাওয়াফ ও সায়ি করে মাথা কামিয়ে ইহরামমুক্ত হওয়াকে ওমরাহ বলে। (ফাতহুল বারি : ৩/৫৯৭) হজ কার ওপর ফরজ : হজ ইসলামের মৌলিক পাঁচ ভিত্তির অন্যতম। নবম হিজরি, মতান্তরে ষষ্ঠ হিজরিতে তা ফরজ হয়। প্রাপ্তবয়স্ক সুস্থ ও
ইহরাম অবস্থায় নিষিদ্ধ বিষয়াবলী

ইহরাম অবস্থায় নিষিদ্ধ বিষয়াবলী

ইসলাম ডেস্ক ::: হজ আল্লাহ তাআলা কর্তৃক অকাট্য দলিলের ভিত্তিতে জারিকৃত ফরজ ইবাদত। হজ ও ওমরার ইবাদতে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ও প্রথম রুকনই হলো ইহরাম। ইহরাম অর্থ হলো কোনো জিনিসকে নিজের ওপর হারাম বা নিষিদ্ধ করে নেয়া। আর এ ইহরামই হজ ও ওমরার প্রথম ফরজ কাজ। পুরুষদের জন্য সেলাইবিহীন দুই টুকরো সাদা কাপড় আর নারীদের জন্য স্বাচ্ছন্দ্যময় শালীন পোশাক পরিধান করাই হলো ইহরাম। ইহরামের নিষিদ্ধ বিষয়াবলী: ইহরামের কারণে ব্যক্তিকে যে বিষয়গুলো থেকে বিরত থাকতে হয়। যেমন: ১. মাথার চুল মুণ্ডন করা। দলিল হচ্ছে আল্লাহ তাআলার বাণী: “আর তোমরা ততক্ষণ পর্যন্ত মাথা মুণ্ডন করবে না, যতক্ষণ না কোরবানীর পশু যথাস্থানে পৌঁছে যাবে।”[সূরা বাকারা, আয়াত: ১৯৬] আলেমগণ মাথার চুলের সাথে শরীরের সমস্ত চুলকে অন্তর্ভুক্ত করেছেন। অনুরূপভাবে নখ কাটা ও ছোট করাকেও এর অন্তর্ভুক্ত করেছেন। ২. ইহরাম বাঁধার পর সুগন্ধি ব্যবহার করা; কাপড়ে হোক কিংব
মহানবীর অনুপ্রেরণায় মদিনার আদলে পাকিস্তান গড়তে চান ইমরান

মহানবীর অনুপ্রেরণায় মদিনার আদলে পাকিস্তান গড়তে চান ইমরান

ইসলাম ডেস্ক ::: মহানবী (সা.)-এর অনুপ্রেরণায় মদিনার মতো করে নতুন পাকিস্তান গড়তে চান দেশটির সম্ভাব্য পরবর্তী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান। জাতির উদ্দেশে দেওয়া এক টেলিভিশন ভাষণে দেশকে ইসলামিক কল্যাণ রাষ্ট্রের আদলে গড়ে তোলার পরিকল্পনার কথা জানিয়েছেন তিনি। ভাষণে বিরোধীদের প্রতি প্রতিহিংসামূলক পদক্ষেপ না নেওয়ার অঙ্গীকার করে ইমরান এক ঐক্যবদ্ধ পাকিস্তান গড়ার প্রতিশ্রুতি দেন। ভোটগ্রহণ শেষ হওয়ার ২১ ঘণ্টা পেরিয়ে গেলেও যান্ত্রিক ত্রুটির কারণ দেখিয়ে এখন পর্যন্ত সাধারণ নির্বাচনের চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করেনি পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন কমিশন সূত্রকে উদ্ধৃত করে পাকিস্তানের প্রভাবশালী সংবাদমাধ্যম ডন জানিয়েছে, নির্বাচনি ফলাফল প্রেরণের যান্ত্রিক ব্যবস্থা অকার্যকর হয়ে পড়ায় এখন বিকল্প পদ্ধতিতে ফলাফল একত্রিত করছে কমিশন। এখন পর্যন্ত ৪৯ শতাংশ ভোট গণনার ভিত্তিতে পাওয়া কমিশন ঘোষিত বেসরকারি ফলাফল অনুযায়ী, ১১
error: Content is protected !!