সন্ধ্যা কাটানোর সেরা জায়গা খেজুরতলা

সন্ধ্যা কাটানোর সেরা জায়গা খেজুরতলা

ভ্রমণ ডেস্ক :::

পতেঙ্গা আর নেভাল, এ দুইয়ের সৌন্দর্য উপভোগ করতে চাইলে আপনাকে যেতে হবে খেজুরতলা সৈকতে। নামটা অনেকের কাছে অপরিচিত। তবে বন্দর নগরী চট্টগ্রামবাসীর কাছে বেশ জনপ্রিয় একটি জায়গা এটি। জেলার আকর্ষণীয় যে কয়েকটি সমুদ্র সৈকত রয়েছে তারমধ্যে খেজুরতলা অন্যতম।

খেজুরতলা সন্ধ্যা কাটানোর জন্য ভালো জায়গা। এ সময় সাগরের ঢেউয়ের তীরে আছড়ে পড়ার শব্দ আর বাতাসের হু-হু আওয়াজ ছাড়া আর কোনো কোলাহলই আপনাকে ছুঁতে পারবেনা। সাগরজুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে থাকা শত শত জেলে নৌকার টিমটিমে আলো আর দূর সমুদ্রে স্থবির জাহাজগুলোর সোডিয়াম আলো আপনাকে নিয়ে যাবে এক অন্য ভুবনে।

ভোরে ও সন্ধ্যায় ভিন্ন ভিন্ন রূপে অপরূপ হয়ে উঠে খেজুরতলা বীচ। জায়গাটিতে দাঁড়িয়েই একইসঙ্গে পতেঙ্গা আর নেভালের মনোমুগ্ধকর সৌন্দর্য উপভোগ করা যায়। এখানকার বাঁধের উপর বসে সমুদ্রের বিশালতা দেখে মন জুড়িয়ে যাবে যে কারো। সমুদ্রের তীর ঘেঁষে হেঁটে যেতে যেতে অবলোকন করা যাবে জেলেদের জীবনের নানা বাঁক। ভোরে জেলে পাড়ায় গেলে বাড়তি পাওনা হিসাবে কিনতে পারবেন তাজা ইলিশ কিংবা বিভিন্ন সামুদ্রিক মাছ।

যাওয়া-থাকা : ঢাকা থেকে সড়ক, রেল এবং আকাশপথে চট্টগ্রাম যাওয়া যায়। চট্রগ্রাম শহরের যেকোনো স্থান থেকে ষ্টীলমিল বাজারে এসে ইজিবাইক কিংবা রিকশা যোগে খেজুরতলা সৈকতে যেতে পারবেন। সময় লাগবে দশ মিনিট। আর রাতে থাকতে চাইলে চট্টগ্রাম শহর ও পতেঙ্গার আশেপাশের হোটেল নির্বাচন করতে হবে। বিভিন্ন মানের হোটেল রয়েছে চট্টগ্রামে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!