‘মেম্বার’ থেকে সংসদে যাওয়ার দৌঁড়ে আমিন

‘মেম্বার’ থেকে সংসদে যাওয়ার দৌঁড়ে আমিন

নিজস্ব প্রতিবেদক :::

একসময় ছিলেন ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) মেম্বার। এরপর নির্বাচিত হন চেয়ারম্যান। তারপর উপজেলা চেয়ারম্যান। এবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি থেকে মনোনয়ন লাভ করে সংসদে যাওয়ার দৌঁড়ে অবতীর্ণ হলেন নুরুল আমিন। যাকে সবাই নুরুল আমিন চেয়ারম্যান বলেই চেনে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার (২৭ নভেম্বর) বিএনপির মনোনয়ন বোর্ড চট্টগ্রাম-১ মিরসরাই আসনে ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী হিসেবে তাঁর হাতে দলীয় মনোনয়নপত্র তুলে দিয়েছে। অবশ্য এ আসনে তাঁর বিকল্প হিসেবে বড়তাকিয়া গ্রুপের চেয়ারম্যান মনিরুল ইসলাম ইউসুফ ও এফবিসিসিআই এর সাবেক সহ-সভাপতি শিল্পপতি কামাল উদ্দিন আহম্মদের নামও ঘোষণা করেছে দলটি।

বিকল্প প্রার্থী ঘোষণা প্রসঙ্গে নুরুল আমিন বলেন, ‘সরকার কখন কাকে জেলে ঢুকিয়ে দেয় তার কোন ঠিক নেই, তাই বিকল্প হিসেবে কামাল সাহেবকে রাখা হয়েছে।’ অবশ্য এ প্রসঙ্গে কথা বলতে বিএনপির বিকল্প প্রার্থী কামাল উদ্দিন আহম্মদের ব্যক্তিগত মোবাইল ফোনে একাধিকবার চেষ্টা করেও সংযোগ পাওয়া যায়নি।

এদিকে বিএনপি প্রার্থী নুরুল আমিনের পরিবার ও দলীয় সূত্রে জানা গেছে, ১৯৯৮ সালে মিরসরাইয়ের ওচমানপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্থানীয় পাতাকোর্ট ওয়ার্ড থেকে নির্বাচন করে সদস্য (মেম্বার) নির্বাচিতন হন। এরপর ২০০৩ সালে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্ব›িদ্বতা করে একই ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০০৯ সালে বিএনপির সমর্থন নিয়ে মিরসরাই উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে অংশ নিয়ে চেয়ারম্যান নির্বাতি হন। এবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপির টিকিট পেয়ে সংসদে যাওয়ার প্রথম ধাপ ফাড়ি দিলেন। এছাড়া তিনি দীর্ঘদিন মিরসরাই উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করেন। একই সময় ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তরজেলা বিএনপির সহ-সম্পাদক। বর্তমানে তিনি উপজেলা বিএনপির আহবায়ক কমিটির সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

মঙ্গলবার সন্ধ্যায় বিএনপির মনোনীত প্রার্থী নুরুল আমিন বলেন, ‘জীবনে কোন নির্বাচনে আমি হারিনাই। এবারও ইনশাল্লাহ হারবো না। ধানের শীষ প্রতীকের জয় সুনিশ্চিত করে দেশনেত্রী বেগম খালেদা জিয়াকে কারামুক্ত করবো।’

উল্লেখ্য, দলীয় মনোনয়ন লাভের আশায় মিরসরাই আসন থেকে ১৮জন প্রার্থী দলের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ করেন। এদের মধ্যে ১২জন দলের কাছে মনোনয়নপত্র জমা দেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!