বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও রচনা প্রতিযোগীতা

বঙ্গবন্ধুর শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে  আলোচনা সভা ও রচনা প্রতিযোগীতা

নিজস্ব প্রতিবেদক :::

মিরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজ মিলনায়তনে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শাহাদাৎ বার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও রচনা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (২৬ আগস্ট) সকালে মিরসরাই অটিজম সেন্টারের আয়োজনে ও উন্নয়ন সংস্থা অপ্কা’র সহযোগীতায় আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন চট্টগ্রাম মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি অধ্যাপক ডাঃ মো. ইসমাইল খান।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে অধ্যাপক ডাঃ মো. ইসমাইল খান বলেন, ‘বঙ্গবন্ধু বাঙ্গালী জাতির সর্বশেষ্ঠ সন্তান। ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে স্বাধীনতা সংগ্রাম পর্যন্ত বঙ্গবন্ধুর ভূমিকা ছিলো অবিস্মরণীয়। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট বঙ্গবন্ধুকে যদি হত্যা করা না হতো তাহলে বাংলাদেশ অনেক আগে সোনার বাংলায় পরিণত হতো। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করে স্বাধীনতা বিরোধীরা বাঙ্গালী জাতিকে পিছিয়ে দিতে চেয়েছিলো। কিন্তু বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনা সেই স্বপ্ন বাস্তবায়নের লক্ষ্যে কাজ করে যাচ্ছেন। নতুন প্রজন্মকে বঙ্গবন্ধু ও বাঙ্গালী জাতির সঠিক ইতিহাস জানতে হবে। বঙ্গবন্ধুর স্বপ্ন বাস্তবায়নে কাজ করতে হবে।’

ওইদিন মিরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের অধ্যক্ষ মো. নুরুল আফছারের সভাপতিত্বে ও মিরসরাই অটিজম সেন্টারের সমন্বয়কারী সাংবাদিক শারফুদ্দীন কাশ্মীরের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানের শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন অপ্কার নির্বাহী পরিচালক মো. আলমগীর হোসেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন কবি ও কথা সাহিত্যিক আব্দুল কাইয়ুম নিজামী, মিরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় গর্ভনিং বডির সভাপতি প্রফেসর ডাঃ জামশেদ আলম।

এসময় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য খোরশেদ আলম আজাদ, সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান ইয়াছমিন আক্তার কাকলী, মিরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের উপাধ্যক্ষ নাসির উদ্দিন, প্রভাষক সাইফুল হক সিরাজী, মো. নজরুল ইসলাম, সাইদুল ইসলাম, মঘাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান শাহিনুল কাদের চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-দপ্তর সম্পাদক তোফায়েল উল্ল্যাহ চৌধুরী নাজমুল সহ মিরসরাইয়ের কর্মরত সাংবাদিকবৃন্দ।

আলোচনা সভার শুরুতে মিরসরাই বিশ্ববিদ্যালয় কলেজের শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে ‘বঙ্গবন্ধু ও ১৫ আগস্ট’ শীর্ষক রচনা প্রতিযোগীতা অনুষ্ঠিত হয়।

সব শেষে রচনা প্রতিযোগীতায় বিজয়ীদের হাতে পুরস্কার তুলে দেন উপস্থিত অতিথিবৃন্দ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!