ফণীর প্রভাবে ইছাখালীতে ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত, আহত ৩

ফণীর প্রভাবে ইছাখালীতে ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত, আহত ৩

আজিজ আজহার/ সাদমান সময় :::


ঘূর্ণিঝড় ফণীর আঘাতে মিরসরাই উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নের ৭নং ওয়ার্ডের চুনিমিঝির টেক, টেকেরহাট, হাসানাবাদ, হাফিজগ্রামে প্রায় ২৭টি পরিবারের ঘরবাড়ি ও দোকানপাট বিধ্বস্ত হয়েছে। এছাড়াও অলিনগর, পরাগলপুর ও বেদেপল্লীতে গাছ পড়ে তিন গৃহবধূ গুরুত্বর আহত হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ে উপজেলার বিভিন্ন এলাকায় গাছপালা উপড়ে পড়েছে এবং বৈদ্যুতিক লাইন বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে।

আহতরা হলেন, করেরহাট ইউনিয়নের দক্ষিণ অলিনগরের জামশেদ আলমের স্ত্রী বিবি খাদিজা (২৩), জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের বেদেপল্লীর মৃত মনা মিয়ার স্ত্রী জাকিয়া বেগম (৬০) ও একই ইউনিয়নের পরাগলপুর গ্রামের নারায়ণ দাশের স্ত্রী রীণা রাণী দাশ (৪০)। আহতদের উদ্ধার করে তাৎক্ষণিক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স (মস্তাননগর) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। পরবর্তীতে অবস্থার অবণতি হলে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়।

ফণীর প্রভাবে বিধ্বস্ত হওয়া ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারগুলো ইছাখালী ইউনিয়নের হাজ্বী আজিজ উল্লাহ ভূইয়া বাড়ির ইকবাল হোসেন, হারুণ সওদাগর, দিনমজুর হোরা মিয়া, হাসিম, সিএনজি চালক মো. ইউসুফ, দিনমজুর ইউসুফ, গফুর, নূর হোসেন, আলম, বশর সওদাগর, আবছার বাবুর্চি, আলাউদ্দিন সহ টেকেরহাট ও ভাঙ্গনির এলাকায় দোকানপাট বিধ্বস্ত হয়।

এদিকে ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাব শেষ হতেই মিরসরাই উপকূল তীরবর্তী এলাকার মানুষজন আশ্রয়স্থল থেকে বাড়ি ফিরতে শুরু করেছে।

মিরসরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন বলেন, ফণীর প্রভাব কমে আসতেই সাইক্লোন সেন্টারে আশ্রয় নেয়া মানুষজন নিজগৃহে ফিরতে শুরু করেছে।

তিনি আরও বলেন, ঘূর্ণিঝড় ফণীর প্রভাবে উপজেলার ইছাখালী ইউনিয়নে ২৭টি ঘরবাড়ি, দোকানপাট বিধ্বস্ত, বিভিন্ন বৈদ্যুতিক খুটির উপর গাছপালা পড়ে সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। উপজেলা প্রশাসন থেকে ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারদের শুকনা খাবার প্রদান করা হচ্ছে।

মিরসরাই উপজেলা সিপিপি টিম লিডার এম সাইফুল্লাহ দিদার জানান, ঘূর্ণিঝড় পরবর্তী জরুরী উদ্ধার কার্যক্রমে উপজেলা প্রশাসনের সাথে কাজ করে যাচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!